শৈলকুপায় দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত পতিরন নেছার মৃত্যু

0
6

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত বৃদ্ধা পতিরন নেছা মৃত্যুর সাথে পাঞ্জালড়ে ১৭দিন পর অবশেষে মারা গেলেন। গত ৪ আগষ্ট শৈলকুপার পাইকপাড়া গ্রামে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে সত্তোরার্ধ বৃদ্ধা তছিরন নেছা সহ অর্ধ শতাধিক মানুষ আহত হয় । মারাত্মক আহত তছিরন নেছা কে মুমুর্ষ অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেলে রেফার্ড করা হয়েছিল ।

বুধবার সকালে তিনি সেখানে মারা যায়। নিহত পতিরন নেছা পাইকপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তার শেখের স্ত্রী । এ ঘটনার পর গ্রামটিতে নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সরেজমিনে পাইকপাড়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, গ্রামবাসীর মধ্যে চাপা আতঙ্ক বিরাজ করছে । মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। নিহত পতিরন নেছার পুত্রবধু আছিয়া খাতুন জানান, তার শাশুড়ি কে ঘরের মধ্যে উপর্যুপুরী কুপিয়ে মুমুর্ষ অবস্থায় ফেলে যায় গ্রাম্য সন্ত্রাসীরা ।

দারিদ্রতার কারণে ভালভাবে চিকিৎসা করাতেও হিমসিম খেতে হয় তাদের। ফরিদপুর মেডিকেলে তার চিকিৎসা চলছিল। তিনি বলেন যারা তার শাশুড়ি কে হত্যা করেছে তাদের বিচার করতে হবে।

শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) বজলুর রহমান জানান, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে বৃদ্ধ পতিরন নেছা। তার মৃত্যুর পর গ্রামে আবার যাতে সহিংসতা না ছড়িয়ে পড়ে সে কারণে পুলিশ মোতায়েন আছে। এছাড়া ঐ হামলার ঘটনায় দায়েরকৃত আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here