পেপে ফলের নানা গুন

0
7

আমার নিউজ ডেক্স: পেপে ফলে রয়েছে নানা গুনাগুন। ফল বলতেই দেহের জন্য ভিটামিনের জোগান দেয়, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং উপাদেয় ও হজমে সহায়ক। পুষ্টিবিদরা বলেন, দেহের জন্য ফলের থেকে বেশি উপকারী আর কোনো খাবার নেই। সব ফলই যথেষ্ট উপকারী। তবে তন্মধ্যে পেঁপের কথা কিছুটা হলেও ভিন্ন। কাঁচা অবস্থায় সবজি হিসেবে আর পাকা অবস্থায় ফল হিসাবে ব্যবহৃত পেঁপের রয়েছে নানাবিধ গুণ। পুষ্টিবিদরা বলেন, জন্ডিস থেকে ডেঙ্গু- এমনকি ক্যান্সারের মতো মরণব্যাধি রোগের ক্ষেত্রেও পেঁপের উপকার তুলনাহীন! গ্যাস্ট্রিক সমস্যায় যারা ভুগছেন, তাদের জন্য পেঁপে মহৌষধি। হজমের সমস্যার সমাধানেও পেঁপে বেশ কার্যকরী। ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় পেঁপে। তবে জেনে অবাক হবেন যে, শুধু পেঁপেই নয়, পেঁপের বীজও প্রচণ্ড রকমের উপকারী আর পুষ্টিগুণে ভরপুর!

তাই বিজ্ঞানীদের বক্তব্য- পেঁপের বীজ ফেলে না দিয়ে তা কাজে লাগান। জেনে নিই পেঁপের বীজের অজানা আশ্চর্য সব গুণ:

হজম শক্তিতে পেঁপের বীজ

শরীরের মধ্যে প্রোটিন ফাইবারকে ভেঙে বিপাক প্রক্রিয়াকে স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে পেঁপের বীজ।

ডেঙ্গুজ্বর

ডেঙ্গুজ্বর এ বৈজ্ঞানিক যুগে এসেও এক মহামারীর নাম। প্রতি বছরই ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুমুখে পতিত হচ্ছেন লাখ লাখ মানুষ। বিজ্ঞানীরা বলছেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে পেঁপের ভূমিকা উল্লেখযোগ্য!

এর কারণ হিসেবে জানা গেছে, ডেঙ্গু আক্রান্ত হলেই শরীরে যে প্লেটলেটের ঘাটতি থাকে, তা পেঁপের বীজ কমিয়ে দেয়। এ সময় নিয়মিত পেঁপে বীজ ও পেঁপেপাতা খেতে থাকলে প্লেটলেট কাউন্ট আবার স্বাভাবিক মাত্রায় ফিরে আসে।

লিভারের সমস্যা

যকৃত বা লিভারের সমস্যায় পেঁপের বীজ অনন্য ভূমিকার রাখে। বিশেষজ্ঞদের মতে, একটু পানি আর দইয়ের সঙ্গে পেঁপের বীজ মিশিয়ে নিয়মিত খেতে পারলে যকৃত ভালো থাকে।

ঋতুস্রাব সমস্যায়

ঋতুস্রাবের সময় অসহ্য যন্ত্রণার সম্পূর্ণ উপশমের জন্য পেঁপের বীজ অত্যন্ত কার্যকরী! পিরিয়ড চলাকালীন পেঁপে বীজের সঙ্গে মধু মিশিয়ে ১ চামচ করে খেলে এ সময়ের ব্যথা অনেক কম বোধ হবে।

ত্বক পরিচর্যায়

পেঁপের বীজ আর পাতা বেটে ফেসপ্যাক বানিয়ে ফেলা যায়। বার ওই প্যাক মুখে লাগিয়ে অন্তত ১০ মিনিট রেখে দিলেই হয়। সপ্তাহে অন্তত ২-৩ দিন এভাবে পেঁপের বীজের ফেসপ্যাক তৈরি করে মুখে মাখলে তৈলাক্ত ত্বক আর ব্রণ-ফুসকুড়ির সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

জীবাণু ধ্বংসে

পেঁপে বীজে রয়েছে এক ধরনের উৎসেচক, যা আমাদের শরীরে প্রবেশ করা নানা ক্ষতিকর জীবাণুকে মেরে ফেলে। এ ছাড়া শরীরে প্রোটিনের বিপাকে সাহায্য করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here