ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে তুর্কি রাষ্ট্রদূতের ভেন্টিলেশন হস্তান্তর

0
108
ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে তুর্কি রাষ্ট্রদূতের ভেন্টিলেশন হস্তান্তর
ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে তুর্কি রাষ্ট্রদূতের ভেন্টিলেশন হস্তান্তর
ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ২টি ভেন্টিলেশন সিস্টেম হস্তান্তর করা হয়েছে। রোববার (৬ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে হাসপাতালের মিলনায়তনে বাংলাদেশে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত মোস্তফা উসমান তুরান  হাসপাতালের তত্ত্বাবোধায়ক ডাঃ সৈয়দ রেজাউল ইসলামের কাছে ভেন্টিলেটর
হস্তান্তর করেন।
ভেন্টিলেশন সিস্টেম হস্তান্তর  উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। হাসপাতালের তত্ত্বাবোধায়ক ডাঃ সৈয়দ রেজাউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত মোস্তফা উসমান তুরান।
বিশেষ অতিথি ছিলেন সিভিল সার্জন ডাঃ শুভ্রা রানী দেবনাথ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( রাজস্ব) রাজিবুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার
(সদর সার্কেল) আবুল বাশার, জাহেদী ফাউন্ডেশনের নির্বাহী সদস্য শাহারিয়ার জাহেদী হিজল।
হাসপাতালের তত্ত্বাবোধায়ক ডাঃ সৈয়দ রেজাউল
ইসলাম জানায়, জাহেদী ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ‘তুর্কিস ফ্রেন্ডস’ নামের একটি সংস্থা এ ভেন্টিশেলন সিস্টেম প্রদাণ করে। এ ভেন্টিলেশনের মাধ্যমে করোনা আক্রান্ত গুরুত্বর রোগীদের সুচিকিৎসা প্রদান করা সম্ভব হবে বলে জানান তিনি।
প্রধান অতিথি তুর্কি রাষ্ট্রদূত মোস্তফা উসমান তুরান তার বক্তব্যে বলেন, কোভিড মহামারীর মধ্যেও বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।  অর্থনৈতিক ভাবে বাংলাদেশ দিন দিন ভালো করছে। গত ২ বছর আমি দেখেছি কোভিড মহামারিকে পাশ কাটিয়ে এগিয়ে চলেছে। বাংলাদেশের ডায়নামিক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলেছে। আর দেশের হাসপাতালগুলো করোনার সামনের সারিতে কাজ করছে। এর মধ্যে ঝিনাইদহের এই হাসপাতালটি সামনের সারিতে রয়েছে। এজন্য এখানে ২ টি ভেন্টিলেটর দেওয়া হলো।
জাহেদী ফাউন্ডেশনের নির্বাহী সদস্য শাহারিয়ার জাহেদী হিজল জানান, করোনার মহামারীরসহ বিভিন্ন সময়ে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে এক কোটি ৫৪ লাখ টাকার বিভিন্ন চিকিৎসা সামগ্রী দিয়েছেন। তূর্কিরা তাদের ব্যবসায়িক পার্টনার। যার ফলে তাদের ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে তূকিদের সাথে দেশের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজ করে থাকেন।
আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবোধায়কের নিকট ভেন্টিলেটর হস্তান্তর করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত।
জেলা প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here