আন্তর্জাতিক চাপ:আমাজন বাঁচানোর একমাত্র পথ

0
7

আমার নিউজ ডেক্স: আমাজন বনাঞ্চল ধ্বংসের মাধ্যমে ব্রাজিল সরকার আত্মঘাতী উপায় বেছে নিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির একজন শীর্ষ বিজ্ঞানী। এই পথ থেকে ব্রাজিল সরকারকে সরানোর একমাত্র উপায় আন্তর্জাতিক চাপ বলে মনে করেন সাও পাওলো বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্সটিটিউট অব অ্যাডভান্স স্টাডিজের সিনিয়র গবেষক কার্লোস নোবরে।

গত কয়েক বছর ধরে বনাঞ্চল ধ্বংস হচ্ছে জানিয়ে এই বিজ্ঞানী বলেন, প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো সরকারের আমলে এর গতি বেড়েছে। পরিবেশ সংস্থাকে দুর্বল করে এবং খনি ওয়ালা, কৃষক ও কাঠুরেদের সমর্থন দিয়ে বলসোনারোর সরকার বনাঞ্চল ধ্বংসে উৎসাহ দিচ্ছে বলে জানান তিনি।

শুক্রবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেছেন। প্রতিদিন রেকর্ড গতিতে পুড়ছে ‘পৃথিবীর ফুসফুস’খ্যাত আমাজন জঙ্গল।

ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ফর স্পেস রিসার্চ (আইএনপিই) বলছে, এ বছর আগস্ট পর্যন্ত ব্রাজিলে ৭৫ হাজারেরও বেশি অগ্নিকাণ্ড হয়েছে। এর মধ্যে অর্ধেকের বেশি আগুনের ঘটনা আমাজন জঙ্গলে, যা আগের বছরের তুলনায় ৮০ শতাংশ বেশি।

পরিবেশবাদীরা বলছেন, আমাজনকে বাণিজ্যের জন্য উন্মুক্ত করার সরকারি নীতির কারণেই আগুন লাগানোর মহোৎসব শুরু হয়েছে। সাও পাওলো বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্সটিটিউট অব অ্যাডভান্স স্টাডিজের সিনিয়র গবেষক কার্লোস নোবরে বলেন, অরণ্য বিনাশ জোরালো হয়ে স্বাভাবিক এই আর্দ্র বনাঞ্চলকে শুষ্ক তৃণভূমিতে পরিণত হওয়ার দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

এর পরিণাম জলবায়ু, বণ্যপ্রাণী ও বনজীবীদের জন্য ভয়ঙ্কর হবে বলে সতর্ক করেন তিনি। এই বিজ্ঞানী বলেন, এই বছর ২০-৩০ শতাংশ বাড়ার পথে রয়েছে অরণ্য বিনাশ। গত দশ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো তা দশ হাজার বর্গকিলোমিটার ছাড়াবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই প্রবণতা গত কয়েক বছর ধরে খারাপ হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, বলসোনারোর অধীনে এতে গতি এসেছে।

পরিবেশ সংস্থাকে দুর্বল করে এবং খনি ওয়ালা, কৃষক ও কাঠুরেদের সমর্থন দিয়ে বলসোনারোর সরকার বনাঞ্চল ধ্বংসে উৎসাহিত করছে বলে জানান তিনি। সাক্ষাৎকারে ব্রাজিলের এই বিজ্ঞানী বলেন, ‘পরিস্থিতি খুব খারাপ। এটা ভয়ঙ্কর হবে। এসব আগুনের অনেকাংশেরই কারণ সাংস্কৃতিক চাপ, যা মন্ত্রীরা দিচ্ছে। তারা অরণ্য বিনাশে জোর দিচ্ছে কারণ তা অর্থনীতির জন্য ভালো। এতে যারা অবৈধভাবে বন ধ্বংস করে তারা শক্তিশালী হচ্ছে’।

জনমত জরিপ অনুযায়ী ব্রাজিলের সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠী আমাজনের সুরক্ষা চান। কিন্তু সরকার ব্যবসায়িক স্বার্থকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে।

পরিবেশগত কারণে স্থগিত হয়ে যাওয়া একটি মেগা হাইড্রো প্রকল্প চলতি সপ্তাহে আবারও শুরুর ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বলসোনারো। এছাড়া তার ছেলে কংগ্রেসে একটি বিল এনেছেন, যাতে আরও দুর্বল হয়ে পড়বে আদিবাসী এলাকা ও প্রকৃতি সংরক্ষণকারী অঞ্চলের সুরক্ষা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here